মুক্তিপ্রকাশ রায়

নববর্ষের কবিতা ১৪২৪

 

অনন্ত মধ্যযুগ আমাদের ললাটলিখন
তবুও স্বভাবদোষে জীবনের দিকে পাশ ফিরি
পটের নদীর মতো বয়ে যায় দিন-মাস-সন
তবু নববর্ষে দ্বারে হাত পাতে অন্ধ ভিখিরি

অন্ধ, কেননা জানি ভালোবাসা অন্ধ হয়ে থাকে
তাহলে যা চাই তা কি দ্বিধাহীন মুক্ত ভালোবাসা?
যে প্রেমে অঙ্কুর বাড়ে, বৃষ্টি বুকে জড়ায় খরাকে
সে মিলনসম্ভাবনা পৃথিবীর কাছে প্রত্যাশা?

অথচ পৃথিবী আজ কারাগার, প্যানোপটিকন
সহস্র চোখে মানা, নিষেধের উঁচোনো তর্জনী
নতুন নাট্যকার রোমিওকে ধরাল সমন
শিল্প হল কাটা জিব, উপড়ানো দু’চোখের মণি

মানুষকে নয়, ছায়ামূর্তিকে ভালোবাসা রীতি
দুঃস্বপ্নে ভিন্নতার রক্তের পিপাসু টোটেম
চাপাতিরা ভয় পায় জিজ্ঞাসাচিহ্নের আকৃতি
শাকান্নের বিলাসিতা, সঙ্গসুখ, নাজায়েজ প্রেম

পরিত্যক্ত কামানের মুখে তবু বেপরোয়া ফুল
দৈববাণীর মতো মুছে দিতে চায় সব শোক
অভয়বাবুর মতো মাফ করে ছাত্রদের ভুল
মনে হয় স্নেহশীল ঈশ্বর বলবেন–
তোমাদের নিরাময় হোক

 

(ছবি-সোহিনী দাশগুপ্ত)

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*