তিনটি কবিতা

রাজীব সিংহ

 

সকাল

আমি কি ধরতে চাইছি তোমাকে
ধরতে চাইছি তোমার হাত, ঐ নগ্ন নির্জন শাদা!
অনেক প্রলোভন এড়িয়ে ঘষটে ঘষটে নিজেকে ঠেলেছি।
একটানা প্রলাপ বকতে থাকা ফুটপাতের ভবঘুরেকে
তাচ্ছিল্যে দশ টাকা দিতে চেয়েছি
নিজেকে যোগ্যতামান দেবার জন্য
তোমার পরিবারের কুশল জেনেছি
রাতজাগা হাসপাতালের করিডোরে কামনা করেছি প্রেম
ঘন কুয়াশায় ভিজে যাচ্ছে মুখ
কপাল থেকে টপটপ ঝরে পড়ছে শিশির
প্রসূতিসদনে তখন হই চই আনন্দসংবাদ
আত্মজ ভূমিষ্ঠ হবার ছন্দে মাতোয়ারা ভোরের সকাল…

আমি স্পষ্ট দেখতে পাচ্ছি
পিচরাস্তায় পড়ে থাকা একটি অহঙ্কারী দশ টাকার নোট,
ফুটপাতের ভবঘুরে তার দিকে ফিরেও দেখছে না।

খোলসজন্ম

আমার ইশারা এরা বোঝে না
বোঝে না কীভাবে পালটে যায় নারী ও পুরুষ সম্পর্ক

শরীরের অমোঘ আকর্ষণ ভুলে নদীতীরে দাঁড়িয়ে
এইমাত্র আমি আমার খোলস খুলে দিলাম —
টিভিতে বিতর্ক আর সংবাদপত্রে আধুনিকমনস্কতা —
প্রকৃতি ও পুরুষ। পুরুষ ও প্রকৃতি।
ব্যতিক্রমের নূতন পাঠক্রম লিখবো চলো, এসো…

রোবট

শেভ করতে গিয়ে ছড়ে যায় গাল।
একবিন্দু রক্ত ঝরে পড়ে বেসিনের সাদায় —
টাইয়ের নট বাঁধতে বাঁধতে
মনে মনে ঠিক করি ডেইলিরুটিন
জীবন আটকে আছে চ্যাপলিনের সিনেমার ধাতব চাকায়…
বুক থেকে প্লাস্টিকের গুলি ছুঁড়ে দিতে ইচ্ছে হয়,
অ্যাটাক! অ্যাটাক!

About Char Number Platform 46 Articles

ইন্টারনেটের নতুন কাগজ

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*