রিজার্ভড বগি । তৃতীয় বর্ষ । মে ২০১৯-এপ্রিল ২০২০

চার নম্বর প্ল্যাটফর্ম থেকে প্রতি মাস পয়লায় ছাড়া মেল ট্রেনের রিজার্ভড বগি বা মলাট ভাবনা। তৃতীয় বর্ষ, মে ২০১৯-এপ্রিল ২০২০। এই বছর আমাদের রিজার্ভড বগি-তে এসেছে বিভিন্ন দিক থেকে ২০১৯-এর সাধারণ নির্বাচন, বামপন্থা ও ভবিষ্যতের ভারত, প্রকৃতির প্রতিশোধ, অন্য ভ্রমণ…

লিখেছেন অনিকেত দাস, অনিমিখ পাত্র, অপরাজিতা সেনগুপ্ত, উদয়ন বন্দ্যোপাধ্যায়, কাজল সেনগুপ্ত, চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, জয়ন্ত বসু, ড. বুবাই বাগ, দেবব্রত শ্যামরায়, ধ্রুবজ্যোতি মুখার্জি, নীলাঞ্জন হাজরা, প্রতিভা সরকার, ব্রতীন্দ্র ভট্টাচার্য, যশোধরা রায়চৌধুরী, রেজাউল করীম, শতাব্দী দাশ, শুভাশিস মুখোপাধ্যায়, শুভেন্দু দেবনাথ, শ্রীজাতা গুপ্ত, সুমন গুণ এবং স্বাতী ভট্টাচার্য। সাক্ষাৎকার দিয়েছেন জীজা ঘোষ। অনুবাদ করে পুনর্মুদ্রণ করা হয়েছে প্রভাত পট্টনায়েক এবং বিজয় প্রসাদ ও সুধন্ব দেশপান্ডে-র দুটি লেখা এবং রোমিলা থাপার-এর একটি সাক্ষাৎকার।

সূচি

সবুজ ঘাসের দেশ দারুচিনি দ্বীপের ভিতর

অন্য ভ্রমণ…

…ইতোমধ্যে তাঁহাদিগের পত্রিকা বিষয়নির্বাচনে গুরুগম্ভীর ও ভারিক্কি বলিয়া বাজারে দুর্নাম কিনিয়াছে… অধিকাংশ পাঠক বলেন, কঠিন সব প্রতিষ্ঠানবিরোধী ও আগমার্কা রাজনৈতিক প্রতিপাদ্যে ঠাসা পত্রিকার এক-একটি সংখ্যার সূচিপত্র দেখিলেই নাকি হৃৎকম্প উপস্থিত হয়। অতএব সম্পাদকমণ্ডলী এইবার আদাজল খাইয়া সহজ হইবার সাধনায় নামিয়াছেন। কিন্তু বদস্বভাব সহজে যায় না— যথেষ্ট সহজ বিষয়ও ভাবনার দোষে কঠিন হইয়া দাঁড়ায়। তালবৃক্ষের ন্যায় সরলরৈখিক প্রস্তাবটিও তাঁহাদিগের কূটচিন্তার গুণে বাবলাগাছের প্রায় কণ্টকিত ত্রিভঙ্গমুরারীরূপ পরিগ্রহ করে। ভ্রমণই হউক এই সংখ্যার বিষয়মুখ— এ-পর্যন্ত ভাবিয়াও তাঁহারা অতএব স্বভাবদোষে ভাবনার লাঙ্গুলে একটি মোক্ষম মোচড় কষিলেন। স্থির হইল, ভ্রমণই হউক কেন্দ্রীয় বিষয়, কিন্তু তাহা যেন হয় ‘অন্য ভ্রমণ’।

এইবার এই অন্য ভ্রমণের সংজ্ঞা নিরুপণে নরক দ্বিতীয়দফা গুলজার হইয়া উঠিল। কাহাকে বলিব অন্য ভ্রমণ?…


মুসাফির এ মন — নীলাঞ্জন হাজরা
পড়শি চিনের অচিন সম্পদ — স্বাতী ভট্টাচার্য
ক্যাম্বোডিয়া— ঐতিহ্য আর বধ্যভূমি — ব্রতীন্দ্র ভট্টাচার্য
বঙ্গকন্যার বেইরুট দর্শন — যশোধরা রায়চৌধুরী
সংস্কৃতির আসক্ত শহরে — সুমন গুণ
অন্য অবস্থান: স্কটিশ হাইল্যান্ডস, হার্মিটেজ ওয়াক — শ্রীজাতা গুপ্ত

তৃতীয় বর্ষ, চতুর্থ যাত্রা, ১লা আগস্ট, ২০১৯

 

প্রকৃতির প্রতিশোধ

..বিশ্বব্যাপী দূষণ ও জলবায়ুর এই অতি দ্রুত পটপরিবর্তনের নিরিখে আমরা যখন সামগ্রিকভাবে পরিবেশকেই চারনম্বর প্ল্যাটফর্মের জুলাই সংখ্যার মূল বিষয়ভাবনা হিসেবে বিবেচনা করিতেছি, ঠিক তখনই নজর পড়ে রাষ্ট্রপুঞ্জের একটি সদ্য-প্রকাশিত রিপোর্টের উপর। সেই রিপোর্টে, বিশেষ করিয়া নজর কাড়ে একটি ক্ষুদ্র অথচ অতি তাৎপর্যপূর্ণ শব্দবন্ধ – ‘ক্লাইমেট অ্যাপারথিড’। নবনির্মিত এই শব্দযুগ্মকটিকে ব্যাখ্যা করিতে গিয়া রাষ্ট্রপুঞ্জের মানবাধিকার-বিষয়ক বিশেষ দূত ফিলিপ অ্যালস্টন বলিতেছেন, এমন দিন সমাগতপ্রায় যখন জলবায়ুর পরিবর্তন বিশ্বব্যাপী নয়া এক শ্রেণিবৈষম্য ঘনাইয়া তুলিবে। আমাদিগের দৈনন্দিন অভিজ্ঞতার নিরিখেই আমরা তাঁহার তত্ত্বটি মিলাইয়া লইতে পারি। বন্যাপীড়িত এলাকায় ত্রাণকার্য পরিদর্শন করিতে যাওয়া ফিনফিনে ধুতি-পাঞ্জাবিপরিহিত জনপ্রতিনিধিকে ঘিরিয়া ধরিয়া যে বিক্ষোভ, তাহার মর্মেও প্রকারান্তরে সেই শ্রেণিবৈষম্যের বিরুদ্ধে ক্রোধেরই বীজ প্রোথিত থাকে কি না তাহা ভাবিয়া দেখিবার বিষয়।

এইসকল ভাবনারই ফলশ্রুতিস্বরূপ চার নম্বর প্ল্যাটফর্মের জুলাই সংখ্যার মূল বিষয়: প্রকৃতির প্রতিশোধ। বিশ্বজোড়া জলবায়ুর পরিবর্তন মানবজাতিকে কীভাবে প্রভাবিত করিতেছে, একগুচ্ছ নিবন্ধের মধ্য দিয়া আমরা তাহারই সন্ধান করিতে চাহিয়াছি।…


এই আমাদের শহরের হালচাল — শুভাশিস মুখোপাধ্যায়
“একটু জল পাই কোথায় বলতে পারেন?” রাজনীতিকরা উত্তর দিন — জয়ন্ত বসু
জলের সঙ্গে যুদ্ধ: ডুবছে বানি সান্তা — চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য
জলবায়ু পরিবর্তন সবচেয়ে বেশি আঘাত করবে নিম্নবর্গের মানুষদের — দেবব্রত শ্যামরায়
মফ্লং— এক বিমূর্ত আদর্শের নাম — শতাব্দী দাশ
পালাব না রুখে দাঁড়াব?– ডক্টর ফস্টাস ও হোমো ডিউস — ধ্রুবজ্যোতি মুখার্জি
বিশ্বভরা প্রাণ: উন্মত্ত পৃথিবীতে মেয়ের জন্য মায়ের চিঠি — অপরাজিতা সেনগুপ্ত

তৃতীয় বর্ষ, তৃতীয় যাত্রা, ১লা জুলাই, ২০১৯

 

বামপন্থা ও ভবিষ্যতের ভারত

…যদি প্রশ্ন জাগে, এমন নিষ্ঠুর হৃদয়বিদারক উপমা কি বামেদের প্রাপ্য ছিল? ঝটিতি উত্তর আসে, এ প্রাপ্য নির্ধারণ করিয়াছেন তাঁহারা নিজেরাই। যদি প্রশ্ন জাগে, এমত পশ্চাদ্‌গমনের আশু সমাধান কী, তাহারও উত্তর, সমাধান তাঁহাদেরই হস্তে। সে পথ কেমন বন্ধুর, কতদূর সমস্যাদীর্ণ, কেমন তার উচ্চাবচ সম্মুখগমন, ভবিষ্যৎই তাহা বলিতে পারে। জুন সংখ্যার বিষয়মুখ নির্বাচন করিতে বসিয়া চারনম্বর প্ল্যাটফর্মের সম্পাদকমণ্ডলীর প্রত্যয় হইয়াছে, রাত্রির নিবিড়তম অন্ধকারের মুহূর্ত হইতেই যেমত পরবর্তী ঊষাকালটির নির্মাণ শুরু হয়, ভারতবর্ষে বামপন্থী রাজনীতির ভবিষ্যৎ পথরেখাটির অভিমুখ নির্ধারণের সূচনাকল্পেও তেমনই ইহাই সঠিক সময়বিন্দু। এই হতমান, হৃতগর্ব সময়ের গর্ভেই হয়তো বা পথের সঠিক সন্ধান মিলিতে পারে— এমন ভাবনাক্রম হইতেই এই সংখ্যার মূল বিষয়ভাবনা ‘বামপন্থা ও ভবিষ্যতের ভারত’-এর পরিকল্পনা।…


ভারতে বামপন্থীদের কেন চাই — প্রভাত পট্টনায়েক
বামপন্থা-বিরহিত ভারত? — বিজয় প্রসাদ ও সুধন্ব দেশপান্ডে
বাংলা তথা ভারতের বাম আন্দোলন: কিছু কথা যা বলা দরকার — রেজাউল করীম
প্রয়োজন সমাজের সব স্তরের কাছে পৌঁছনোর উপযোগী এক নয়া বামপন্থা — উদয়ন বন্দ্যোপাধ্যায়
পার্লামেন্টারি রাজনীতি, বামপন্থা ও আমরা — অনিকেত দাস
এক মৃত সৈনিকের ভবিষ্যদ্বাণী — শুভেন্দু দেবনাথ

তৃতীয় বর্ষ, দ্বিতীয় যাত্রা, ১লা জুন, ২০১৯

 

আবার ভোটের লাইনে

নির্বাচনরঙ্গের দিকে আরেকবার

…এবং বলা বাহুল্য, দেশজোড়া সাধারণ নির্বাচনের আবহে তৃতীয় বর্ষের প্রথম সংখ্যার মূল বিষয়ভাবনার অভিমুখ নির্ণয় করিতে বসিয়া নির্বাচন ছাড়া আর কিছুই আমাদিগের বিবেচনায় আসে নাই। সে-কারণেই, গত সংখ্যার প্রতিধ্বনিস্বরূপ, এবারের রিজার্ভ্‌ড বগির নাম ‘আবার ভোটের লাইনে’। যেহেতু সাপ্তাহিক লোকাল ট্রেন বিভাগেও আমরা গত মাসাধিককাল ধরিয়া নির্বাচনেরই বিভিন্ন দিক লইয়া একাদিক্রমে আলোচনা করিয়া আসিতেছি, তাই এই সংখ্যার রিজার্ভ্‌ড বগিতে আমরা বাছিয়া লইয়াছি নির্বাচনী প্রক্রিয়ার সহিত জড়িত কিছু স্বল্পালোচিত বিষয় ও সংশ্লিষ্ট মানুষজনের কথা।…


সেকুলারিজম… আমরা সেকুলার ছিলাম… সেটা আমাদের হারিয়ে যাচ্ছে — জীজা ঘোষ
সোনাগাছির ভোট এবং মে দিবস পালন — প্রতিভা সরকার
দু’দিনের জাদুবাস্তবতা — অনিমিখ পাত্র
নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় প্রতিবন্ধকতা: প্রতিবন্ধকতাযুক্ত মানুষদের সার্বিক অন্তর্ভূক্তিকরণে প্রধান অন্তরায় — ড. বুবাই বাগ
ভোটের সময়ে পরিবেশ সম্পর্কে যত কম উল্লেখ হয়, তত ভালো — কাজল সেনগুপ্ত
এঁদের আক্রমণের লক্ষ্য সেই সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যাদের সমাজবিজ্ঞান পড়ানোর ক্ষেত্রে সুনাম আছে — রোমিলা থাপার

তৃতীয় বর্ষ, প্রথম যাত্রা, ৪ঠা মে, ২০১৯

 

 

%d bloggers like this: