সাম্যব্রত জোয়ারদারের কবিতা

নির্বাচিত অংশের প্রতি

 

#

এ লেখার প্ররোচনা নেই, ব্যক্তিগত কেউ কেউ বলবেন সম্পদের অর্ধেকের বেশি বাংলা কবিতার… তবু বলি— বিমারি ভুখমারি অওর মওত, হম্‌রি হাত নহী হ্যায় ম্যানেজারসাব। হুগলি নদীর তীরে পতাকা ছোপানো হয় সারারাত, শিফটের বার্নার জ্বলে…

 

#

মূলধন আমার খনি প্রতিষ্ঠার বহু আকরিক। তবু ফলিডল খায় নিমাই সরকার। ভরদুপুরে ক্যারম খেলে কর্মহীন মজদুর। দেশ আরও ততোধিক দেশে হাটে ও বাজারে পোকামারা বিষ বিক্রয়কেন্দ্রগুলি — কৃষকের ঘুম চুরি করে, এ-বছর বিক্রি নেই হিমঘর থেকে আলু ছড়িয়েছে পথে।

 

#

দৈনিক পত্রিকা বিক্রি কমে যাচ্ছে কমরেড শোনো লক্ষমাত্রা ঠিক রাখো ছাড়ো অহেতুক ঝোঁক, জেলা তহবিল থেকে লোন ব্যবস্থাও হয়ে যাবে ঠিকা শ্রমিকের দলে সংগঠন কেন নয় মজবুত, না কমরেড এখনই আপনাদের হাতে পিস্তল তুলে দিতে পারছি না—  দৈনিক কর্মকাণ্ডে মিটিং মিছিল জমায়েত নির্বাচন নির্বাচন আরও কিছু নির্বাচন পরে হে মার্কেটের শ্রমের আগুন প্রকৃত কমিউনিস্টের কাছে হতাশার কোনও স্থান নেই, তাই চিঠি লিখে যেতে হবে দূর কোলিয়ারি চা-বাগান থেকে— ভাল আছি শ্রদ্ধাস্পদেষু ও মাননীয়া।

 

#

এইবার নাচ শুরু মাথা খাড়াইয়া হাঁটবার, জানি পানিট্যাঙ্কি বহুদূর আত্মজীবনীর অংশে এইবার পার হতে হবে সাঁকো বর্ষাডুবি, ওই বুঝি বরানগরের গলি —  কিশোর অষ্টার লাশ আঁচলে জড়িয়ে ঢিমনি ও বেবুশ্যেরা নাচ শুরু করে দেবে কিন্তু ঢিমনি বনাইল কেডা, বচ্ছরভর বানভাসি বন্যায় কারা ব্যারাজের গেট খুলে দেয়…

 

#

এসেছি হরতাল দিনে গণভোট পার করে বিড়ির দোকানে মার খাওয়া সরকারি বাসের ড্রাইভার— জীবনবিমার রক্ত জামার হাতায় মুছে অস্ত্রবিরতির পর ডিপোর স্টার্টারে প্রফেসর এই দেখুন কুড়িয়ে এনেছি— প্রস্তরযুগের অস্ত্র থান ইট

 

#

উনুন পর্যন্ত রাত দীর্ঘ গড়িয়েছে, হতে পারে যে দিকে কয়লাঘর পেচ্ছাপের কষ্ট শিরদাঁড়া ঝুঁকে আসা কোনও প্রান্তরের চোয়ালের হাড় উঁচু নীল কাজলের মানুষেরা ঝাঁঝরির চুলে ঘৃণ্য জড়িয়ে পাকিয়ে বেঁচে আছে এ-জন্মের কীটের জীবনে মায়েরা সেলাই করছে পুষ্টি নেই স্নেহ নেই যুদ্ধে গেছে ছেলে।

 

#

বলেছিল খাজনা মকুব নির্বাচনী হাওয়া ইশতাহারে — সুরিন্দর তোমার ছুরিকে বলেছিল — খানিক লম্পট হও খালাসিটোলার শনিবারে পরিশ্রমে ঝকঝকে ধারালো মেদহীন গেলাসে গেলাসে গাঢ় নীল কোহলের তর্জমায় ঝাঁঝাঁলো ইতরবুদ্ধি থুতুগেলা মানুষেরা কান্ট্রি রোডের গানে ঘরে ফেরেনি বহুদিন, রেলব্রিজের মাথায় চুলওঠা অতিকায় চাঁদ কত কি তারিখ পার করে সুরিন্দর তোমার ছুরিও আজ আহতের কথা বলে, খিদে চেপে রাখে…

About চার নম্বর প্ল্যাটফর্ম 1253 Articles
ইন্টারনেটের নতুন কাগজ

Be the first to comment

আপনার মতামত...