কবীর সিং: এরা সুখের লাগি চাহে প্রেম প্রেম মেলে না

চৈতালী চট্টোপাধ্যায়

 

সিমোন দ্য বোভোয়া নারীর সামাজিক অবস্থান প্রসঙ্গে বলেছেন, “…thus humanity is male and man define women not in herself but as relative to him, she is not regarded as an autonomous being…”। অনেক বছর আগে বলেছিলেন তিনি। তারপর তো বিশ্বের সব নদীপথেই অনেক জল থুড়ি রক্ত, লজ্জা, অপমান বয়ে গেছে। আর, নারী যে তিমিরে ছিল সে তিমিরেই রয়ে গেছে। তাই আমরা নারী আমরা সব পারি বলে গলা চিরে ক্যাম্পেইন করলেও কিস্যু বদলায় না।

বদলায় না বলেই ‘কবীর সিং’-এর মতো আপাদমস্তক মেল শভিনিস্ট মুভি বানানো হয়।

কেউ কেউ বলে থাকেন সিনেমা তো আমাদের উইশফুল থিঙ্কিংকে সুড়সুড়ি দেওয়ার জন্য, সেলুলয়েডের রূপকথা। কিন্তু গল্পের গরু কত উঁচুতে উঠতে পারে, গাছের! অর্থাৎ কবীর সিং দেখতে বসে আমার ভাবনা একসঙ্গে দুটি খাতে চলছিল। পুরুষতন্ত্র ও অ্যাবসার্ডিটি। শাহিদ কাপুর মেডিকেলে টপার। কিন্তু স্ক্রিপ্ট অনুযায়ী ডাক্তারি করা ব্যতিরেক অন্য সব কিছুতেই আসক্ত। ক্লিনিকে চাকরি নেয়। মদে টইটম্বুর হয়ে দিব্যি পেশেন্ট দেখে চলে। ফিল্মমেকারের এই কল্পনার হিস্টিরিয়া চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছে যায়, যখন তরুণ ডাক্তারটি শরীরে কোকেন নিয়ে ওটিতে সার্জারি করতে ঢুকবে। উঁহু, ঘটনা এখানেই থামছে না। একসময় পেছন উল্টে সেখানেই সে প্রায় অজ্ঞান হয়ে যায়। যেতে যেতে নার্সদের নির্দেশ দিতে থাকে কীভাবে বাকি সার্জারি শেষ করতে হবে!

এবার প্রেমপর্ব। সেও এক্সট্রিম অধিকারবোধ তথা কর্তৃত্ব। বাজারের ফর্দে যেমন মেয়েদের চাহিদা, লজ্জামুখি, অনাঘ্রাতা কুসুমের মতো রূপ, সব আছে এ মেয়ের। পড়াশোনা করে ডাক্তার হতে এসেছে, সেসব কোনও প্রায়োরিটি পাওয়ারই বিষয় নয় আর। শাহিদ কাপুর নবাগতার গায়ে সেই প্রথম দিনেই ট্যাগ সেঁটে দিয়েছে ‘মাই গার্ল’! আমার জন্য বিশেষভাবে তৈরি পণ্যসামগ্রী আমি যদি ভোগ না করতে পারি আমার অ্যাড্রেনালিন ক্ষরণ তো ঘনঘন তুঙ্গে উঠবেই। সিনেমার নায়কেরও তাই হয়। মেয়েটির অন্যের সঙ্গে বিয়ে হোক, সন্তান ধারণ করুক… তো, কী?! মেয়েটি তো তার সম্পত্তি।তার দখলদারি নিতে ব্যাপক ভায়োলেন্স। ফিলারের মতো সেক্সও আছে মাঝেসাঝে।

শেষটা হ্যাপি গো রাউন্ড টাইপ! সব মিলমিশ হয়ে গেল। বটপাতার আঠার মতো গাঢ় প্রেম। মেয়েও খুশি। সে তো কারও পজেশন হয়েই ধন্য মনে করেছে জীবন! এ তো আর রবীন্দ্রনাথের মতো বুকের পাটাসম্পন্ন মানুষজন নয় যে গেয়ে উঠবে এরপর… এরা সুখের লাগি চাহে প্রেম প্রেম মেলে না শুধু সুখ চলে যায়…

এই সিনেমা এতদিন ধরে চলে কী করে? বক্স অফিস হিট-ই বা হয় কীভাবে? জটিল ক্যুইজ!

About চার নম্বর প্ল্যাটফর্ম 1860 Articles
ইন্টারনেটের নতুন কাগজ

Be the first to comment

আপনার মতামত...